২ পা নেই, ইচ্ছাশক্তিতে হাতে ভর করে পবিত্র কাবা শরীফ ৭ বার তাওয়াফ কিশোরের ! – News Desk BD
 

২ পা নেই, ইচ্ছাশক্তিতে হাতে ভর করে পবিত্র কাবা শরীফ ৭ বার তাওয়াফ কিশোরের !

কাতারের প্রতিবন্ধী কিশোর গানিম আল মুফতার। দুই পা ছাড়া এক চতুর্থাংশ শরীর নিয়ে জন্ম হয়েছিল তার। হুইল চেয়ারে করে চলাচল করে সে।পবিত্র কাবা প্রাঙ্গনে এসে গানিম ইসলাম ধর্মের প্রতি আবেগঘন ভালোবাসা ব্যক্ত করেছে। হুইল চেয়ার ছাড়া শুধু দুই হাতে ভর দিয়ে কাবা তাওয়াফ করেছে সে।

গত শুক্রবার মাগরিব নামাজের সময় সাতবার কাবা তাওয়াফ করে প্রতিবন্ধী গানিম। সামাজিক মাধ্যম ইনস্টাগ্রামে এই তাওয়াফের ভিডিও প্রচারের পর বেশ সাড়া পড়েছে।কিশোর গানিমের স্বপ্ন ছিল নিজহাতে পবিত্র কাবা শরীফ তাওয়াফ করা এবং পবিত্র হাজরে আসওয়াদ পাথরে চুম্বন করা।

এ স্বপ্নের কথা জেনে তা পূরণে গানিমের জন্য ওমরা পালনের ব্যবস্থা করেন সৌদি পর্যটন এবং জাতীয় ঐতিহ্য কমিশনের চেয়ারম্যান প্রিন্স সুলতান বিন সালমান বিন আবদুল আজিজ।

গানিম প্রতিবন্ধী হওয়ায় কাবা তাওয়াফসহ ওমরা পালনে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থার প্রয়োজন ছিল। এজন্য একটি বিশেষ টিমের মাধ্যমে গানিম ও তার পরিবারের সদস্যদের মক্কায় পৌঁছানোর পর থেকে ওমরা পালনের শেষ পর্যন্ত নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়।

মক্কায় গানিমকে উষ্ণ অভ্যর্থনা জানান প্রিন্স সুলতান। এছাড়া মক্কার গ্র্যান্ড মসজিদের ইমাম শেখ মাহের আল-মুয়াকলির পেছনে গানিমদের নামাজ পড়ানোর ব্যবস্থা করা হয়।
””””
প্রশ্ন:
নাপাক অবস্থায় খাবার গ্রহণ ও পড়াশোনা করা জায়েজ আছে কী? এই ব্যাপারে ইসলামী বিধি-বিধান কী?

উত্তর:
নাপাক অবস্থায় শুধু কোরআন পড়া, স্পর্শ করা, মসজিদে প্রবেশ ও নামাজ পড়া যাবে না। এ ছাড়া, খাওয়া দাওয়া, লেখাপড়া ও অন্যান্য কাজ করা যাবে।

তবে নাপাক অবস্থায় বেশিক্ষণ থাকা ঠিক নয়। মেয়েরা পিরিয়ডকালীন রোজাও রাখতে পারবেন না।
তবে স্বামী-স্ত্রী সহবাসের মাধ্যমে নাপাক হয়েছে এই অবস্থায় সেহেরি খেয়ে রোজা রাখতে পারবে।

এতে রোজার কোনো সমস্যা হবে না। এক্ষেত্রে ফজর নামাজের আগে তাদেরকে গোসলের মাধ্যমে পাক হতে হবে।

[Close]

আবার রোজা অবস্থায় ঘুমের মধ্যে কারো স্বপ্নদোষের মাধ্যমে নাপাকি ঘটলে রোজা নষ্ট হবে না। ফরজ গোসল করে পবিত্র হয়ে নিতে হবে।

লাইক দিন ও জনস্বার্থে শেয়ার করুন

বিজ্ঞাপন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*